eng
competition

Text Practice Mode

কবিতার কথাগুলো সাম্যকে ভাবিয়ে তুলল।

created May 10th, 03:18 by imdesus


2


Rating

225 words
64 completed
00:00
কবিতার কথাগুলো সাম্যকে ভাবিয়ে তুলল। তাই তো, ভোর হলেই পাখি ডেকে ওঠে। ঘুম ভেঙ্গে যায়। পাখিরা যেন ভোরের দূত। চড়ুইয়, শালিক এরকম দুয়েকটা পাখি সাম্য দেখেছে। কিন্তু আরও যে নানা ধরণের পাখি আছে, সে সব পাখির কথা জানতে ইচ্ছে করে তার। মাকে সে জিজ্ঞেস করবে পাখিদের কথা। আচ্ছা মা, পাখিরা কি রাতে ঘুমায় না? ভোর না হতেই কিচিরমিচির করা শুরু করে দেয়। মা বলেন, তা হবে কেন। পাখিরাও ঘুমায়, মা বলেন, পাখির দেশ, নদীর দেশ বাংলাদেশ।
 
পাখিরা প্রকৃতির শোভা। গাছে গাছে ঝোপে ঝাড়ে নদীর তীরে তাদের বিচরণ। কখনো তারা দল বেঁধে আকাশে উড়ে বেড়ায়। কখনো পাতার ফাঁকে চুপ করে বসে থাকে।
কখনো খাবারের জন্য পোকা মাকড়ের উপর ঝাঁপিয়ে পড়ে।
 
মা আরও বলেন, দোয়েল আমাদের জাতীয় পাখি। এদের পায়ের রং সাদা কালো। এরা থাকে লোকালয়ে আর গভীর জঙ্গলে। গাছের উঁচু ডালে মাঝে মাঝে মধুর সুরে গান গায়। ছোট ডাল. খড়কুটো শিকড় বাকড় দিয়ে বাসা বানায়। নানা ফুলের মধু আর কীটপতঙ্গ এদের প্রধান খাদ্য।
 
ছোট্ট আরেক পাখি টুনটুনি। পালকের রং জলপাই সবুজ। মাথায় লালচে রঙের ছোপ। লম্বা ঠোঁটের রং কালচে খয়েরি। পায়ের রং হলুদ। লেজ নাড়িয়ে টুই টুই করে উড়ে
বেড়ায়। এরা মানুষের কাছাকাছি থাকতে ভালোবাসে। চমৎকার বাসা বানায়। পোকামাকড় খেয়ে পরিবেশ সুন্দর রাখে। ফুলের মধুই টুনটুনিদের সবচেয়ে ‍প্রিয়। চড়ুইয়ের মত চঞ্চল স্বভাবের আরেকটি পাখি হলো বুলবুলি। বুলবুলির মাথা গলা কালো। মাথার উপর রাজকীয় কালো ঝুঁটি। এর তলপেটের শেষে লাল ছোট। এরা খুব দ্রুত উড়তে পারে।

saving score / loading statistics ...