eng
competition

Text Practice Mode

মশায় বিড়ম্বনা

created Apr 21st, 04:18 by NatunRoyBipul


2


Rating

299 words
26 completed
00:00
বর্তমান সময়ের এক আতঙ্কের নাম মশা। দিন কি রাত সব সময়েই এদের বসবাস আমাদের চারপাশে। সময় সুযোগ পেলেই শুষে নেবে আপনার রক্ত আর ডেঙ্গি ম্যালেরিয়ার মতো মারাত্মক রোগ ছড়িয়ে দেবে আপনার শরীরে। তাই মশা থেকে নিজেকে এবং পরিবারের অন্য সদস্যদের সুরক্ষিত রাখা আবশ্যক।
 
মশা মূলত ছোট মাছি প্রজাতির পতঙ্গ, যা প্রজাতি গতভাবে প্রায় পঁয়ত্রিশ হাজারের এর মতো আছে পুরো পৃথিবীজুড়ে। দেখতে  ছোট হলেও এর কামড় কিংবা যন্ত্রণা কোনো ভাবেই উপেক্ষা করার মতো না। কানের কাছে উড়ে যাওয়া মশা আপনি যতবারই তাড়ান না কেন যেনো বারবার ফিরে আসবেই।
তাই মশা তাড়াতে হাতে কাছে রাখা প্রয়োজন সঠিক সরঞ্জাম। আর সরঞ্জামে যুক্ত হতে পারে মশা তাড়ানোর ইলেকট্রিক ব্যাট, কয়েল, মশা তাড়ানোর স্প্রে, মশারি, ক্রিমসহ নানা কিছু। যা আপনাকে মশার হাত থেকে সুরক্ষিত রাখবে।
 
অন্যদিকে মশা মারার সঙ্গে সঙ্গে এদের যেসব স্থানে জন্মানোর সম্ভাবনা আছে সেসব জায়গা পরিষ্কার করে নেওয়া প্রয়োজন। সেই তালিকায় ঘরের কোনা, আঙিনায় জমে থাকা ময়লা ধুলা, পাত্রে জমে থাকা পানি এসব কিছু পরিষ্কার রাখতে হবে।  
 
ঘরে যথেষ্ট আলো বাতাস প্রবেশ করতে পারে এমন ব্যবস্থা রাখতে হবে। সকাল এবং সন্ধ্যার সময় পর্দা, খাটের নিচের খালি জায়গা, আলমারির পেছনের অংশ এমন জায়গাগুলো আবার ঝেরে মুছে নিতে হবে যাতে মশা লুকিয়ে না থাকতে পারে।
 
সময়ে সবচেয়ে বেশি মশা নিয়ে বিড়ম্বনায় ভুগতে হয় তাই সন্ধ্যার আগে আগে জানালা দরজা ভালো করে বন্ধ করে দিতে হবে। তার আগে ঘরের কোণে কোণে স্প্রে করে নিয়ে কিছুক্ষণ ঘরের বাইরে অবস্থান করে ফ্যান ছেড়ে ঘরের দরজা জানালা খুলে রেখে কিছুক্ষণ পরে সব বন্ধ করে দিতে পারেন।
 
অন্যদিক গরমের সময় দরজা জানালা বন্ধ করে রাখাও কষ্ট সাধ্য হয়ে পরে। সেই ক্ষেত্রে জানালা দরজায় জালি ব্যবহার করতে পারেন। এতে করে বাতাসের আবহ ঘরে থাকবে সঙ্গে মশার হাত থেকেও রেহাই পাওয়া যাবে।
 
এছাড়া মশার কামড়ে অনেকের অ্যালার্জি কিংবা চুলকানি হয়ে থাকে। তাই এরকম সমস্যা যাদের আছে তারা মশা কামড়ালে সঙ্গে সঙ্গে জায়গাটি পরিষ্কার করে নিন।
 

saving score / loading statistics ...