eng
competition

Text Practice Mode

বাংলায় নবাবী শাসনের ইতিহাস -১

created Jul 6th 2019, 10:19 by Anup Talukder


2


Rating

201 words
20 completed
00:00
বাংলায় নবাবী শাসনের প্রতিষ্ঠাতা মুর্শিদকুলি খান। মুর্শিদকুলী খানের মৃত্যুর পর বাংলার নবাব হন তার জামাতা সুজাউদ্দীন মুহম্মদ খান। আলীবর্দী খান বাংলার নবাব হিসেবে বাদশাহ মুহম্মদ শাহের স্বীকৃতি লাভ করেন এপ্রিল ১৭৪০। আলীবর্দী খানের প্রকৃত নাম মির্জা মুহম্মদ আলী। আলীবর্দী খান সমগ্র বাংলা,বিহার উড়িষ্যায় কতৃত্ব প্রতিষ্ঠা করেন ১৭৪১ সালে। আলীবর্দী খানের সময় বাংলার রাজধানী ছিল মুর্শিদাবাদ। আলীবর্দী খানের তিন কন্যা যথাক্রমে ঘষেটি বেগম, মায়মুনা বেগম আমিনা বেগম। নবাব আলীবর্দী খান মে ১৭৫২ দৌহিত্র (৩য় কন্যা আমিনা বেগমের ছেলে) সিরাজউদ্দৌলাকে তার উত্তরাধিকারী ঘোষণা করে। আলীবর্দী খান মৃত্যুবরণ করেন ১০ এপ্রিল ১৭৫৬।আলীবর্দী খানের মৃত্যুর পর মাত্র ২২ বছর বয়সে বাংলা, বিহার উড়িষ্যার নবাব হন সিরাজউদ্দৌলা বাংলা,বিহার উড়িষ্যার শেষ নবাব সিরাজউদ্দৌলার জন্ম ১৭৩৩ সালে। বাংলা, বিহার,উড়িষ্যার শেষ নবাব সিরাজউদ্দৌলার পুরো নাম মির্জা মুহম্মদ সিরাজউদ্দৌলা নবাব সিরাজউদ্দৌলার পিতার নাম জৈনুদ্দিন আহমদ খান মাতা আমিনা বেগম। বাংলা, বিহার উড়িষ্যার শেষ নবাব সিরাজউদ্দৌলার সহধর্মিণীর নাম বেগম লুৎফুন্নেসা। বাংলা, বিহার উড়িষ্যার শেষ নবাব সিরাজউদ্দৌলার কন্যা উম্মে জোহরার ডাকনাম কুদসিয়া। নবাব সিরাজউদ্দৌলা তার প্রধান সেনাপতি মীর জাফরের বিশ্বাসঘাতকতায় পলাশীর যুদ্ধে ইংরেজদের কাছে পরাজিত হন। ভারতের পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের নদীয়া জেলার ভাগিরথী নদীর তীরে অবস্থিত পলাশীর প্রান্তর। পলাশীর যুদ্ধ সংগঠিত হয় ২৩ জুন ১৭৫৭ সাল; বৃহস্পতিবার।  নবাব আলীবর্দী খানের জ্যেষ্ঠ কন্যা ছিলেন ঘষেটি বেগম।

saving score / loading statistics ...